রাজনৈতিক স্বদিচ্ছাই পারে মাদকের আগ্রাসন রোধ করতে
13
নিজস্ব প্রতিনিধি
রাজনৈতিক সদিচ্ছাই স্থানীয় পর্যায়ে মাদকের আগ্রাসনকে রুখে দিতে পারে। তাই তারুণ্য বিধ্বংসী মাদকের আগ্রাসনকে রুখে দিতে রাজনীতিবিদদের উদ্যোগ নিতে হবে। শনিবার নোয়াখালীর মাইজদী একতা কমিউনিটি পুলিশিং ও সামাজিক উন্নয়ন সংগঠনের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত তারুণ্য বিধ্বংসী ইয়াবা ও মাদক রুখে দাঁড়াও শীর্ষক সেমিনারে আলোচকরা এই কথা বলেন।
সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি প্রফেসর প্রসূন চন্দ্র মজুমদারের সভাপতিত্বে সেমিনারে মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপন করেন উন্নয়ন সংগঠন পার্টিসিপেটরি রিসার্চ অ্যাকশান নেটওয়ার্ক-প্রান’র প্রধান নির্বাহী নুরুল আলম মাসুদ। সঞ্চালন করেন একতার সাধারণ সম্পাদক গোলাম আকবর অ্যাডভোকেট।প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্টেট কাজী মাহবুবুল আলম, বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার একেএম জহিরুল ইসলাম, জেলা কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সভাপতি অধ্যাপক কাজী রফিক উল্যাহ, নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মিয়া মোহাম্মদ শাহজাহান, সরকারি কৌসুলী কাজী মানছুরুল হক খসরু অ্যাডভোকেট।
সেমিনারে আলোচকরা বলেন, মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে মাদক-ব্যবসায়ীদের রাজনৈতিক ও প্রশাসনিক পৃষ্ঠপোষকতা বন্ধ করতে হবে। চিহিৃত মাদক ব্যবসায়ীদের দ্রুত গ্রেফতার করার পাশাপাশি শাস্তি নিশ্চিত করতে দ্রুত নিষ্পক্তির লক্ষ্যে বিশেষ ট্রাইবুনাল গঠন ও আদালতে আলামত হেফাজতখানা নির্মাণের দাবি জানান।
সেমিনারে আরো আলোচনা করেন নোয়াখালী নাগরিক মোর্র্চার যুগ্মআহবায়ক আনম জাহের উদ্দিন, সাংবাদিক মাহবুবুর রহমান, জামাল হোসেন বিষাদ, ঘরনীর নির্বাহী পরিচালক পপি রহমান, অ্যাডভোকেট হাজেরা পারভীন, অ্যাডভোকেট রিপন চক্রবর্তী  প্রমুখ।